শেয়ার করুন:

রোমাঞ্চ জাগে তার শরীরের স্রোতে

ভিজে ওঠে শিরা উপশিরা

দূরে ঐ নদীটির দূর দূর দিকে

হাওয়া লাগে ঘুঙুরের গায়ে

 

রাজপুত্রের মতো লুকোনো দুপুর

মন্দিরে বাজে শূন্যতা

বুকের পূর্ণতায় মুখ রাখো এসো

ভেসে যাক চিঠির টুকরো

 

তুমি এলে তাই এতো চঞ্চল ঠোঁট

চোখ যেনো আমলকীতলা

কী আদর জড়িয়েছো অনার্য হাতে

কাঁটা দেয় রোদের জ্যোৎস্না!

 

চুরি করে নাও ওগো গৃহহীন আকাশ

সীমন্তে নদীজল লেখো

ব্যথার মতোন সুরে বেজে ওঠা ছেলে

চলো আজ হই পরদেশী…

Facebook Comments