শেয়ার করুন:

প্রথম কাব্যগ্রন্থ, প্রথম কবিতা আড্ডাপত্র প্রকাশ করছে। প্রথম কাব্যগ্রন্থের সাথে কবির আনন্দ, উচ্ছ্বাসের পাশাপাশি পাঠকের কানে নতুন কবিতার গুঞ্জরণ ভেসে আসে। পাঠকের মনে কবির প্রথম কাব্যগ্রন্থের প্রথম কবিতাটি তুলে ধরতে চায় আড্ডাপত্র। কবিতা পাঠের সাথে সাথে জানবো কবি সম্পর্কেও। এই আয়োজনটি পরবর্তীতে গ্রন্থাকারে প্রকাশিত হবে..

প্রচ্ছদ

সাইফুল্লাহ মাহমুদ দুলাল

আমার এক জমিন দুঃখ তুই বুঝবি না, অবুঝ বালক
যতবার যাযাবর হয়েছি, ততবার কবেকার কঠিন
কালো পাখি অতলান্ত হ’তে ইতস্ততঃ আস্তে উঠে আসে।
নিঃসঙ্গ চাঁদ টুকরো টুকরো করে ভেঙে পড়ে জমিনে
তখন নিরীহ পাখির একনদী নির্নাদ কেঁদে কেঁদে ওঠে
এক কান্নার অর্থ তুই বুঝবি না বালক, বুঝবি না কোনদিন।
হাজার বছরের নির্মিত প্রাসাদ ভেঙ্গে যায় মুহূর্তের মধ্যে
তুই বুঝবি না এসব জন্মান্ধ বিবর্ণ পাথরের আর্তি
কার্তিকের বুক চিরে মেঘ ভাঙ্গা বৃষ্টির অনন্ত উৎসব।
বালক, তুই কিছুতেই বুঝবি না বয়সের প্রাথমিক ভুল
চিনবি না তীব্র-তীক্ষ্ণ ব্লেড। গৃহহীন যুবকের আত্মবিবাদ
হৃৎপিণ্ডে পুষে রাখা রক্ত-চোষা সেই সুঁইচোরা পাখি।
আজকাল বুঝবি না, বালক। নিবিড় নগরের মাটির মর্মমূল
অষ্ট্রেলিয়ার শিকড় কেন নতমুখী আটলান্টিকার অভিধানে
এক সময় আমিও বালক ছিলাম, ইত্যাদি কিছুই বুঝিনি।
যৌথ স্মৃতির ভেতর জমে আছে, কৈশোরের অমিতাভ তারুণ্য
তবু জাহান্নামের শিবির থেকে জান্নাতের শরনার্থী আমি

আমি বড় দুর্বোধ্য।নারী, আমাকে তুমিও বুঝবে না বোন।

[সাইফুল্লাহ মাহমুদ দুলাল, কবি। কবি পরিচয়ের বাইরেও তিনি সাংবাদিক, নাট্যকার, গবেষক ও প্রাবন্ধিক হিসেবে যথেষ্ট খ্যাতিমান। জন্ম : ৩০ মে ১৯৫৮, শেরপুর। পিতা : আলহাজ্ব মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ, অবসরপ্রাপ্ত স্কুল শিক্ষক। মা : সারা শহীদুল্লাহ । স্ত্রী: অপি মাহমুদ। সন্তান: দুই কন্যা অনাদি নিমগ্ন, অর্জিতা মাধুর্য।
ছাত্রাবস্থায় দৈনিক ইত্তেফাকের মফস্বল সংবাদদাতা হিসেবে সাংবাদিকতার জীবন শুরু। পরে দেশের বিভিন্ন দৈনিক ও সাপ্তাহিক পত্রিকায় কাজ করেন। ১৯৮০ সালে সরকারি চাকরিতে যোগ দেন। প্রবাসী বাঙালিদের জন্য নিউজ এজেন্সি ‘স্বরব্যঞ্জন’ প্রতিষ্ঠা করেন। প্রবাস থেকে প্রকাশিত (যুক্তরাষ্ট্র থেকে অধুনালুপ্ত সাপ্তাহিক প্রবাসী, সাপ্তাহিক আমার পক্ষে, মাসিক পরিচয়, সাহিত্য পত্রিকা আকার-ইকার, মাসিক অভিমত; কানাডার থেকে সাপ্তাহিক প্রবাস বাংলা, সাপ্তাহিক ঢাকা পোস্ট, পাক্ষিক দেশ দিগন্ত, মাসিক বাংলাদেশ, সাহিত্য পত্রিকা বাংলা জর্নাল; জাপানের মাসিক মানচিত্র, মাসিক আড্ডা টোকিও, বিবেক বার্তা; অস্ট্রেলিয়ার সাপ্তাহিক স্বদেশ বার্তা প্রভৃতি) পত্রিকার সাথে যুক্ত। টরেন্টো থেকে প্রকাশিত অধুনালুপ্ত সাপ্তাহিক বাংলা রিপোর্টারে প্রধান সম্পাদক ছিলেন। এখন সাপ্তাহিক বাংলার মেইল এবং সাপ্তাহিক সিবিএন২৪’এর উপদেষ্টা সম্পাদক।এছাড়াও বর্তমানে দৈনিক ইত্তেফাকের কানাডাস্থ বিশেষ প্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। সপরিবারে বসবাস করছেন কানাডায়।
সাইফুল্লাহ মাহমুদ দুলাল কবিতা নিয়ে তিনি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেন। কবিতাকে দেখেন উল্টোদিক থেকে। ভিন্ন আরেকটি চোখ দিয়ে।‌লেখা‌লে‌খি শুরু: মুক্তিযুদ্ধের সময় থেকে। প্রথম লেখা প্রকা‌শিত হয় ১৯৭২ সালে, স্কুল ম্যগাজিনে। তাঁর প্রকাশিত গ্রন্থ সংখ্যা প্রায় ৬০টি।
কাব্যগ্রন্থ: তৃষ্ণার্ত জলপরী (১৯৮২); তবু কেউ কারো নই (নাসিমা সুলতানের সাথে যৌথ ১৯৮৫); অপেক্ষায় আছি প্রতীক্ষায় থেকো (১৯৮৭, ২য় সংস্কারণ ১৯৮৯); শহরের শেষ বাড়ি (, জানুয়ারি ১৯৯১); ঘাতকের হাতে সংবিধান ( ফেব্রুয়ারি ১৯৯০); একি কাণ্ড পাতা নেই( ১৯৯৫); দ্রবীভূত গদ্যপদ্য (১৯৯৯, ২য় সংস্করণ ২০০১); ঐক্যের বিপক্ষে একা (২০০০); মুক্তিযুদ্ধের পঙক্তিমালা ( ২০০১); এলোমেলো মেঘেরমন ( ফেব্রুয়ারি ২০০০); নির্জনে কেনো এতো কোলাহল ( ২০০০); পরের জায়গা পরের জমি ( ২০০৪); নিদ্রার ভেতর জেগে থাকা ( ২০০৪); ঘৃণিত গৌরব ( ২০০৫); কবিতাসমগ্র (২০০৬); অনন্যা প্রকাশন ( ২০০৮);
সাতে নেই, পাঁচে আছি(২০১২); প্রেম বিরহের কবিতা, (শহীদ কাদরী, নির্মলেন্দু গুণ, রুদ্র মুহম্মদ শহিদুল্লাহর সাথে এক বক্সে ১৯৯৬); রবি ঠাকুরের প্রাইভেসি ( ২০১৫); পাখিদের গ্রামে আজ একটি গাছে সাথে সাক্ষাৎ করার কথা (২০১৭); ফেরোমনের গন্দে নেশাগ্রস্থ প্রজাপতি ( ২০১৭); তোমার বাড়ি কত দূর, অন্যপ্রকাশ ( ২০১৭); প্রেমের আগে বিরহে পড়েছি ( ২০১৮); সঙ্গমের ভঙ্গিগুলো ( ২০১৯); তিন মিনিটের কবিতা ( ২০২০); আমার সঙ্গে শেখ মুজিবের দেখা হবে আজ ( ২০২০)।
সাহিত্য পত্রিকা সম্পাদনা : অনুস্বর, ছোটকাগজ, প্রচ্ছদ, সূচিপত্র ।
পুরস্কার ও সম্মাননা : সূচিপত্র সাহিত্যপত্রের জন্য তিনবার মুক্তধারা একুশে পুরস্কার ১৯৮৭, ১৯৮৮ এবং ১৯৯২; শিল্প সাহিত্যে শেখ মুজিব গ্রন্থের জন্য জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্র পুরস্কার ১৯৯৭, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু পদক ১৯৯৬ ; জাপান থেকে বিবেক সাহিত্য পুরষ্কার ২০০৫; পশ্চিমবঙ্গ থেকে কাব্যশ্রী খেতাব ১৯৭৭; মাইকেল মধুসূদন পদক ২০০৫; শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম স্মৃতি পদক ২০১৩; আবু হাসান শাহীন স্মৃতি শিশুসাহিত্য পুরস্কার ২০১৮; আন্তর্জাতিক রূপসী বাংলা পুরস্কার ২০১৮ পূর্ব মেদনীপুর, পশ্চিম বঙ্গ; সাহিত্য দিগন্ত সন্মাণনা ২০১৯, ঢাকা।

Facebook Comments