শেয়ার করুন:

প্রথম কাব্যগ্রন্থ, প্রথম কবিতা আড্ডাপত্র প্রকাশ করছে। প্রথম কাব্যগ্রন্থের সাথে কবির আনন্দ, উচ্ছ্বাসের পাশাপাশি পাঠকের কানে নতুন কবিতার গুঞ্জরণ ভেসে আসে। পাঠকের মনে কবির প্রথম কাব্যগ্রন্থের প্রথম কবিতাটি তুলে ধরতে চায় আড্ডাপত্র। কবিতা পাঠের সাথে সাথে জানবো কবি সম্পর্কেও। এই আয়োজনটি পরবর্তীতে গ্রন্থাকারে প্রকাশিত হবে..

এসো

স.ম. শামসুল আলম

এসো আমার ঘরে সোনালী শয্যা,
এসো চাঁদ, এসো মেঘ–
আমি সাজিয়ে রেখেছি ঘর
ফুলে ফুলে, বেলুনে বেলুনে।
এসো আমার ঘরে নবান্নের ধান,
এসো প্রেম, এসো নদী–
আমি প্রেমিক সেজে বসে আছি
পালের নৌকোতে, ছইয়ের ভেতর।
এসো আমার ঘরে মুহূর্ত সুন্দর,
এসো সুখ, এসো শান্তি–
আমি তোমার জন্যে যত্নে রেখেছি

একটি সুন্দর জীবন।

স.ম. শামসুল আলম ক‌বি, শিশুসা‌হি‌ত্যিক, গী‌তিকার, ছড়াকার, প্রাবন্ধিক ও সংগঠক। জন্ম ১৯৬২ সালের ২৫ আগস্ট রাজবাড়ী জেলার কালুখালী উপজেলাধীন শিকজান গ্রামে। তাঁর পিতা এস. এম. শাহজাহান আলী এবং মাতা সালেহা শাহজাহান। ছয় ভাইবোনের মধ্যে তিনি দ্বিতীয়। তিনি দুই সন্তানের জনক– কন্যা শামাদান উফা ও পুত্র আনজাম আনন। স্ত্রী নিগার সুলতানা জুঁই।
স.ম. শামসুল আলম ১৯৭৯ সা‌লে লেখালেখি শুরু করেন এবং একই বছরে ফরিদপুর জেলা পরিষদের মুখপত্র মাসিক ‘গণমন এ প্রথম লেখা প্রকাশিত হয়। ১৯৮৫ সালে দৈনিক ইত্তেফাকের কচি-কাঁচার আসরে প্রকাশিত হয় একটি ছোটগল্প ‘কোঁকড়ানো চুল’। এছাড়া বিভিন্ন দৈনিক, সাপ্তাহিক, পাক্ষিক, মাসিক ও ত্রৈমাসিক পত্র-পত্রিকায় কবিতা, ছড়া, গল্প ইত্যাদি ছাপা হতে থাকে। ১৯৮৭ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি নওরোজ সাহিত্য সম্ভার থেকে প্রকাশিত হয় প্রথম কাব্যগ্রন্থ ‘হিংসার নক্ষত্র এক’। কচি-কাঁচার আসরে তাঁর লেখা প্রকাশিত হলেও পরিচালক রোকনুজ্জামান খান দাদাভাই-এর সঙ্গে তিনি ঘনিষ্ঠ হন ১৯৯৩ সালে। ১৯৯৪ সালে দাদাভাই তাঁকে কেন্দ্রীয় কচি-কাঁচার মেলার কার্যনির্বাহী পরিষদে অন্তর্ভুক্ত করেন। বর্তমানে তিনি লেখালেখিতে সক্রিয় এবং সাহিত্যের বিভিন্ন শাখায় তাঁর অবাধ বিচরণ। বাংলাদেশের প্রায় সবগুলো জাতীয় দৈনিক ও বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় তাঁর লেখা গল্প, উপন্যাস, কবিতা, ছড়া, শব্দরম্য, কলাম, উপসম্পাদকীয় ইত্যাদি প্রকাশিত হয়েছে ও হচ্ছে।
এ পর্যন্ত প্রকাশত গ্রন্থ ৭২টি। কাব্যগ্রন্থ– হিংসার নক্ষত্র এক (১৯৮৭), দুঃখের কাছে আশ্রিত আমি (১৯৮৭), দাঁড়াবার পা কোথায় (২০০১), একদিন বুকজলে নেমে (২০১৪), সোনার বাসর (২০১৪), একটি আকাশবৃক্ষ আমাকে বলেছে (২০১৬), চমকে ওঠে চোখের হাসি (২০১৭), অর্ধেক চুম্বন (২০১৯), না চুমুকে না চুম্বনে (২০২০)।
গী‌তিক‌বিতা– ফিরবে বলে আর এলে না (২০১৭)।
শিশুকিশোর গ্রন্থগুলো হলো: কবিতা– আমার মনের আকাশ জুড়ে (২০০৪, ২০১৬), স্বাধীন স্বাধীন স্বপ্নগুলো (২০১৩), বাবার কবর (২০১৩), নতুন রঙে আঁকা (২০১৫), আমার দেশের মনের সাথে (২০১৫), মায়ের অলংকার (২০১৬), শিস দিয়ে যাই (২০১৯), স্বাধীনতা ভালোবাসি (২০২০)। ছড়া– হেসে ফাটে দম (১৯৯৭, ২০০৪), আনন উফার ছড়া (২০১৩), ব্যাঙ বেড়ালের ছড়া (২০১৩), আঙুল কেটে আড়ি (২০১৬), অং বং চং (২০১৬), বলতে পারি কথা (২০১৬), হুমড়ি খেয়ে পড় (২০১৬), গাধার হাসি (২০১৬), ভূতের বেগার খাটি (২০১৬), গয়নার নাও (২০১৬), গল্প নাচে ছড়ার গাছে (২০১৭), মুখে ফোটাই খুশির বুলি (২০১৯)। গল্প– আব্বুর ফিরে আসা (২০০১, ২০১৪, ২০১৬), লিজার বাগান বাড়ি (২০১৩), অপির দুপুর (২০১৫), মিরধা ভাইয়ের মজার কীর্তি (২০১৫), শিয়াল ও বেজির গল্প (২০১৬), কাঠবেড়ালির বন্ধু (২০১৬), শিশিরের দেশে (২০১৭), সোনার পাতা (২০১৭), বুলির কথামালা (২০১৭), রঙ দিয়ে যায় চেনা (২০১৭), শেখ রাসেলের বন্ধুরা এবং আমি (২০১৭), শোলার ময়না (২০১৭), নিনিত এখন ভাবতে শিখেছে (২০১৯)। রম্যরচনা– শব্দরম্য (২০১৩)। উপন্যাস– গল্পের গাড়ি মিরধা ভাই (২০১৯)। সংকলিত গ্রন্থ– ছড়াসমগ্র (২০১৭), কিশোর কবিতা সমাহার (২০১৭), কিশোর গল্প সমাহার (২০১৭), কিশোরসমগ্র (২০১৯), মুক্তিযুদ্ধের ছড়া কবিতা (২০১৯), জনকের মুখ (২০২০), ছন্দানন্দে বঙ্গবন্ধু (২০২০)।
রাজনৈতিক ছড়া– চমক দেব ধমক দেব (১৯৯৯), শরম দেব গরম দেব (২০১৩), ঝলক দেব বলক দেব (২০১৭), কলম দেব মলম দেব (২০১৭), তবক দেব সবক দেব (২০২০)।
গল্প– শরীরী উপাখ্যান (২০১২), একটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রের খসড়া (২০১৫), অক্ষমতার স্বরূপ ও নৈশব্দের বুনন (২০১৭), নিড়ানি ও শোকগুচ্ছ ২ে০২০)। রাজনৈতিক উপাখ্যান– বাঙালী জাতি ও কতিপয় জানোয়ার (১৯৯১)।
উপন্যাস– অচল পা (২০১৪), খাস কামরা (২০১৯)।
কলাম– সমকলম (২০১৫),
নাটক– স্বপ্নভূমি (২০১৭), উদার আকাশ চাই (২০১৭), তিমিরের কান্না (২০১৯)।
সংকলিত গ্রন্থ– আমার বঙ্গবন্ধু (২০১৬, ষষ্ঠ মুদ্রণ– জুন ২০১৯), সমকবিতা (২০১৭), নির্বাচিত গল্প (২০১৭), বঙ্গবন্ধুসমগ্র (২০২০)।
শিশু-কিশোর সংগঠন আনন ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি। আনন ফাউন্ডেশনের মুখপত্র ‘আনন’ নামে একটি পত্রিকা সম্পাদনা করেন এবং শিশুকিশোর উপযোগী মানসম্মত গ্রন্থ প্রকাশের প্রত্যয়ে “আনন প্রকাশন” নামে একটি প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করেন।
বর্তমানে তিনি নির্মাণ ও আবাসন ব্যবসার সাথে জড়িত।

Facebook Comments