শেয়ার করুন:

প্রথম কাব্যগ্রন্থ, প্রথম কবিতা আড্ডাপত্র প্রকাশ করছে। প্রথম কাব্যগ্রন্থের সাথে কবির আনন্দ, উচ্ছ্বাসের পাশাপাশি পাঠকের কানে নতুন কবিতার গুঞ্জরণ ভেসে আসে। পাঠকের মনে কবির প্রথম কাব্যগ্রন্থের প্রথম কবিতাটি তুলে ধরতে চায় আড্ডাপত্র। কবিতা পাঠের সাথে সাথে জানবো কবি সম্পর্কেও। এই আয়োজনটি পরবর্তীতে গ্রন্থাকারে প্রকাশিত হবে..

পিথাগোরাস

শাকিল রিয়াজ

রাত স্তন্যপায়ী। হে চাঁদ, চাঁদের কঠোর প্রচ্ছায়া
তোমার গহ্বর ছিঁড়ে লাফ দেয় খয়েরি ইঁদুর
রাতের ইশারা পেয়ে গল্প শেষ করে ঘড়ির প্রলাপ
তবুও কখনো বিড়ালের কান্না কাঁধে নিয়ে
পাপবিদ্ধ এক ফেরিওলা হেঁকে যায়
মধ্যরাতের সড়কে
তার রুগ্ন চিৎকারে জাহান্নামের প্ররোচনা
কখনো প্রশ্রয় পায়
কখনো শরীরে আগুনের লকলকে ছাট এসে
পুড়ে দেয় উর্বর জরদ, উন্মুক্ত পিথাগোরাস।
যৌন অনুভুতি ঘিরে কেন এত ক্রুদ্ধ উন্মোচন
কেনো এক বলিষ্ঠ কটিদেশের সন্ধান-প্রাণিত
দৈর্ঘ্য প্রস্থ ঘনিষ্ঠ বিন্যাস কেঁদে ওঠে অন্ধকারে?
সেই অন্ধকার, যেন কারো দীর্ঘ চুলের কপাট খুলে
চুয়ে পড়া ফোঁটা ফোঁটা অন্ধ রেণু!
সেদিনই জেনেছিলাম
অন্ধকার হয়ে যেতে পারে কখনো নিস্তব্ধ হুলুস্থূল
এত প্রজ্ঞা তার
এতই নিঃশব্দ আর্তনাদ
শ্বাসকষ্টের এতই ক্লেদজ তরঙ্গ ছায়া হয় অন্ধকারে
একজন এসে বলেছিল রাতে আর্দ্র আলিঙ্গনে।
………………………………………
শাকিল রিয়াজ। কবি, সাংবাদিক, কলামিস্ট। জন্ম ১৭ অক্টোবর ১৯৭০। গ্রামের বাড়ি বরিশালের মুলাদী উপজেলায়। জন্ম নারায়ণগঞ্জ। পিতা মোঃ মজিবুল ইসলাম, মাতা ফৌজিয়া ইসলাম। শৈশব কৈশোর কেটেছে ফরিদপুরে।তিনি ১৯৮৫ সালে ফরিদপুর জেলা স্কুল থেকে মাধ্যমিক ও ১৯৮৭ সালে রাজেন্দ্র কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করেন। অতপর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগে এম এ পাশ করেন ১৯৯২ সালে। সুইডিশ ভাষা, সাহিত্য ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ে পড়েছেন স্টকহোম ইউনিভার্সিটিতে (২০০৬-২০০৭)। স্টকহোমের স্কুল অব কমপিটেন্স ডেভেলাপমেন্টে পড়েছেন কোয়ালিফায়েড রিসার্চিং নিয়ে (২০০৯)। ক্যারোলিনস্কা ইনস্টিটিউট থেকে “ভ্যালুস এন্ড লিডারশিপ” বিষয়ে উচ্চতর কোর্স করেছেন (২০১৩)।
স্কুল-জীবনেই লেখালেখিতে হাতেখড়ি। সাংবাদিকতায় দীক্ষাও স্কুল জীবনে। ফরিদপুর জেলা স্কুলে অধ্যয়নকালে জাতীয় ও স্থানীয় পত্রপত্রিকায় লেখা প্রকাশিত হয়। সম্পাদনা করেছেন কলেজ শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে প্রকাশিত পত্রিকা “রক্তাক্ত সংলাপ”। ফরিদপুরে লিটলম্যাগ আন্দোলনের প্রথমদিকের কলাকুশলী। ঢাকায় এসে প্রথম কাজ করেন মাসিক নতুন ঢাকা ডাইজেস্টে। কাজ করেছেন পালাবদল পত্রিকায় সহকারী সম্পাদক হিসেবে। কবি ফজল শাহাবুদ্দীন সম্পাদিত নান্দনিক পত্রিকায় যোগ দেন সহকারী সম্পাদক হিসেবে। তাঁরই সম্পাদিত সাহিত্য পত্রিকা “কবিকণ্ঠ”তে কাজ করেছেন সহযোগী সম্পাদক হিসেবে। যৌথভাবে সম্পাদনা করেছেন লিটলম্যাখ “চোখ” ও “শিরোনাম”।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পাঠরত অবস্হাতেই মূলধারার সাংবাদিকতার সঙ্গে জড়িত। দৈনিক জনকণ্ঠের প্রতিষ্ঠালগ্নের অন্যতম কুশলী। কাজ করেছেন ফিচার ও সম্পাদীয় বিভাগে বিভাগীয় সম্পাদক হিসেবে। বাংলাদেশ টেলিভিশনে কাজ করেছেন গবেষক ও উপস্হাপক হিসেবে। সংযুক্ত ছিলেন বাংলাদেশ বেতারের সঙ্গেও। নব্বইর গণ আন্দোলনে জড়িয়ে কারাভোগ করেন নব্বই দশকের এই শক্তিমান কবি। ২০০৩ সাল থেকে সুইডেন প্রবাসী। বতর্মানে স্ত্রী ও দুই সন্তানসহ বসবাস করছেন সেখানে।
শকিল রিয়াজের প্রকাশিত গ্রন্থ ছয়টি। এর মধ্যে কাব্যগ্রন্থ চারটি।
কাব্যগ্রন্থ: একাকি পুরুষ একাকি রমণী (১৯৯৫); পোড়ে প্রেম পুরোটাই (১৯৯৭); মকর রাশির মেয়ে (২০০০); নিজের ছায়াকে বৃষ্টিতে ভিজিয়ে মজা লুটি (২০০৪)।
প্রবন্ধগ্রন্থ: অন্যান্য এবং আত্মহত্যার স্বপক্ষে (২০০৩)।
কিশোর উপন্যাস: দ্বীপ বিভীষিকা (১৯৮৭)।
দেশ ভ্রমণঃ ভারত, নেপাল, ভুটান, থাইল্যান্ড, ইংল্যান্ড, জার্মানি, ফ্রান্স, সুইডেন, ফিনল্যান্ড, নরওয়ে, ডেনমার্ক, গ্রিস, তুরস্ক, স্পেন, মাল্টা, রাশিয়া, ইউক্রেন, লাটভিয়া, লিথুয়ানিয়া, হাঙ্গেরি, এস্তোনিয়া, মিশর, ইতালী, পোল্যান্ড।

Facebook Comments